Header Ads

আকাশের রঙ নীল হওয়ার কারণ কী?

বায়ুমন্ডলে ভাসমান ধূলিকণা, বায়ুকণা এবং বিভিন্ন গ্যাসের অনু দ্বারা সূর্যালোকের বিক্ষেপণ ঘটে। এই বিক্ষেপণের ফলে আকাশ নীল দেখায়। সূর্যের আলো যখন বায়ুমন্ডলের মধ্য দিয়ে যায় তখন বায়ুমন্ডলের সূক্ষ্ম সূক্ষ্ম ধূলিকণা ও বিভিন্ন গ্যাস অনু দ্বারা ওই সূর্যের আলো বিক্ষিপ্ত হয়। 

আকাশের রঙ নীল হওয়ার কারণ কী?

বিজ্ঞানী র‍্যালের বিক্ষেপণ সূত্রানুসারে বিক্ষিপ্ত আলোর তীব্রতা আলোর তরঙ্গ দৈর্ঘ্যের চতুর্থ ঘাতের ব্যস্তানুপাতিক। এখন, সূর্যের সাদা আলোতে বর্তমান লাল বর্ণের আলোর তরঙ্গদৈর্ঘ্য সবচেয়ে বেশি এবং বেগুনি বা নীল বর্ণের আলোর তরঙ্গদৈর্ঘ্য অপেক্ষাকৃত কম। 

তাই সাদা আলো বিক্ষিপ্ত হওয়ার পর তার মধ্যে উপস্থিত বেগুনি ও নীল বর্ণের আলোর তীব্রতা সবচেয়ে বেশি হয়ে পড়ে। আবার আমাদের চোখ বেগুনি অপেক্ষা নীল আলোর প্রতি বেশি সংবেদনশীল। এর ফলে ওই বিক্ষিপ্ত আলো আকাশ থেকে আমাদের চোখে এসে পৌঁছোলে আমরা আকাশকে নীল দেখি। উল্লেখ্য, সূর্যকে কিন্তু আমরা হলদেটে সাদাই দেখি ; সূর্য বাদ দিয়ে আকাশের বাকি অংশকে আমরা নীল দেখি।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য যে, বায়ুমণ্ডল না থাকলে সূর্যের আলো বিক্ষিপ্ত হত না এবং কোনো আলোই আকাশ থেকে আমাদের চোখে পৌঁছোত না। ফলে দিনের বেলাতেও আকাশকে কালো দেখাত। তাই মহাকাশযাত্রীরা পৃথিবীর বায়ুমণ্ডল অতিক্রম করে গেলে আকাশকে কালো দেখে। চাঁদে বায়ুমণ্ডল না থাকায় সূর্যের আলো বিক্ষিপ্ত হয় না। তাই চাঁদের আকাশকে কালো দেখায়।

লেখক পরিচিতি
লিখেছেনঃ জ্যোতির্বিদ্যা ও সৃষ্টিতত্ত্ব পেইজ

লিখাটি ভালো লেগে থাকলে সোশ্যাল নেটওয়ার্কে এবং নিজের বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন। নিয়মিত এমন লিখা পেতে EduQuarks এর সাথেই থাকুন। যুক্ত হোন আমাদের ফেসবুক গ্রুপে এবং ফেসবুক পেইজে। সবাইকে অনেক অনেক ধন্যবাদ।

No comments: