Header Ads

মুভি রিভিউঃ Fireworks Wednesday (2006)

মুভি রিভিউঃ Fireworks Wednesday (2006)

ফায়ারওয়ার্কস ওয়েডনেসডে/চাহারশাম্বে শুরি(২০০৬)
পরিচালক: আসগার ফারহাদি
দেশ: ইরান, ভাষা: ফারসি
IMdB: 7.9/10
রোটেন টমেটোজ: ১০০%

আসগার ফারহাদিকে চেনে না এরকম মুভি লাভার সম্ভবত খুব কম আছে। "দ্য সেপারেশন" আর "দ্য সেলসম্যান" এ পরপর দুটো অস্কার জিতে নিয়ে এখন তিনি জগতনন্দিত কিংবদন্তি তুল্য।

এই সিনেমায় অভিনয় করেছেন,তারানেহ আলিদোস্তি।ফিল্ম মান্থলি ম্যাগাজিন অনুযায়ী যিনি ইরানের সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ নারী অভিনেতা। একটুও বাড়িয়ে বলা হয়নি।চাহারশাম্বে শুরি কিংবা দ্য সেলসম্যানে তার অভিনয় দেখলে প্রমানিত হবে যে,তার খ্যাতি মোটেও কোন অতিশয়োক্তি নয়।
আর দুইয়ে দুইয়ে চার মিলিয়েছে, তার হাসি,রুপলাবন্য,চোখের চাউনি,কন্ঠস্বর-যার সবটাই যেকোন তরুনের হৃদয়ে রোগ ধরিয়ে দেয়ার জন্যে যথেস্ট।

আমাদের বাংলাদেশীদের জন্যে সিনেমাটা হজম করা একটু কস্টই হবে,যদি না ইরানি সিনেমা এবং ইউরোপিয় সিনেমা দেখার অভ্যাস থাকে।আমাদের দেশের সিনেমার মানদন্ডে,এটা একটা প্যাকেজনাটক বা টেলিফিল্ম ছাড়া বেশি কিছু না।

গল্পের কোন সহজে দৃশ্যমান পরিনতি নেই,যেমন আসগার ফারহাদির অন্য সিনেমাগুলোতেও থাকেনা সেভাবে।যারা তাঁর নির্মিত এবাউট এলি,দ্য সেপারেশন আর অন্যান্য সিনেমাগুলো দেখেছেন, তারা জানবেন। একই সাথে আসগার ফারহাদির অন্য সিনেমাগুলোর মত এটাও পারিবারিক জটিলতা আর ভাঙনের সুর কে কেন্দ্র করে।

সিনেমার প্রধান পুরুষচরিত্র-মোরতাজা। তার স্ত্রী মোজদেহ। হবু বৌ রুহি,তাদের বাসায় কাজ গৃহপরিচারিকার কাজ করতে এসেছে। এসেই সে আবিস্কার করলো,এ ঘরে ভাঙনের সুর প্রবল।স্ত্রী মোজদেহ সন্দেহবাতিক।স্বামীর জামায় পাশের বাড়ির ডিভোর্সী মহিলার পারফিউমের গন্ধ,মোজদেহ বাড়িতে না থাকা অবস্থায় তার স্বামীর কাছে পাশের বাড়ির মহিলার ফোন দেয়াসহ আরো কতগুলো খটকা একটা সময় প্রকট সন্দেহ বাতিকতার জন্ম দেয়।

আপনি বিরক্ত হবেন স্ত্রী মোজদেহ এর উপর। মোরতাজার জন্যে করুনা হবে। কাজের লোক রুহি, মোজদেহ এর বান্ধবী সহ প্রায় সবাই নিশ্চিত গোবেচারা স্বামী মোরতাজা নির্দোষ।আর,মোজদেহ বিনা কারনে তাকে সন্দেহ করছে।একবার তো মোরতাজাকে সন্দেহ থেকে বাঁচাতে তার পক্ষ নিয়ে মোজদেহকে মিথ্যেও বলেছিলো কাজের মেয়ে(গৃহপরিচারিকা) রুহি।

যাক, এভাবেই গল্প এগিয়ে চলে। পুরো সময়জুড়েই গৃহপরিচারিকা রুহির সাথে সাথে আমরা টুকরো টুকরো কাহিনীচিত্র একসাথে জোড়া দিয়ে একটা সামগ্রিক শুন্যতা,বিষন্নতা আর শীতল নিস্তব্ধতা খুজে পাবো,সিনেমার একদম শেষ ১০ সেকেন্ডে।গল্পের শুরু থেকে শেষ অবধি বিয়ে করতে যাওয়া রুহির স্বপ্নময় চপল নিস্পাপ চলনবলন আর তার বিপরীতে মোজদেহ-মোরতাজার অশান্তির সংসার যেন,বার বার মিলন আর বিরহের চিরকালীন আন্তঃসম্পর্ককেই প্রকট করে তুলে ধরেছে।

স্পয়লার দিতে চাইনা,নতুবা আরো অনেক কিছু বলা যেত।তাতে টুইস্ট গুলো প্রকাশ পেয়ে যাবে।ধৈর্য ধরে বসে নিজে দেখে নিন সিনেমাটা।নাচ নেই।গান নেই। ফারহাদির দ্য সেপারেশন আর দ্য সেলস্ম্যানের মতই একটা এপার্টমেন্ট এ শ্যুট হয়েছে পুরো সিনেমাটার ৭০%। নিশ্চয় বাজেট লেগেছে অনেক কম। তাও দেখুন। ভালো লাগতে বাধ্য।

লিখাটি ভালো লেগে থাকলে শেয়ার করুন অন্যদের সাথে। EduQuarks এর সাথেই থাকুন। সবাইকে অনেক অনেক ধন্যবাদ।

No comments: